বিজনেস আইডিয়া পাওয়ার ৫টি টিপস।

Uncategorized

বিজনেস আইডিয়া পাওয়ার ৫টি টিপস। আসসালামু আলাইকুম ourbdtips.com এর পক্ষ থেকে সকলকে জানাই আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন আশাকরি সকলে ভালো আছেন। আসুন আমরা সকলেই জেনে নিই,বিজনেস আইডিয়া পাওয়ার ৫টি টিপস। আমাদের দেশের বেকার সমস্যা সমাধানের অন্যতম উপায় হচ্ছে উদ্যোক্তা বা ব্যবসায়ী তৈরি করা।

যদি উদ্যোক্তা বা ব্যবসায়ী হওয়া না যাই তাহলে দেশের অর্থনৈতিক ও অবকাঠামো বিনষ্ট হবে। কিন্তু কি নিয়ে ব্যবসা করবে এই এইডিয়া পাওয়া যেন এক বিশাল সমস্যা। কেমন হয় যদি আপনাকে একটি আইডিয়া দেওয়ার বদলে, আইডিয়া খুজে পাওয়ার উপায় শিখিয়ে দেওয়া হয়। কি ভাবছেন,কোথায় এবং কিভাবে পাবেন নিজের বিজনেস আইডিয়া ?তাহলে এই পোষ্টটি আপনার জন্য………..

সমস্যা সমাধানঃ

আমাদের দেশে নানা সমস্যা আপনার আমার সবার সামনে দিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে।আমরা শুধু সমস্যা নিয়ে নানান সময় বিভিন্ন কথা বলে থাকি।কিন্ত এর সমাধান খুজে বের করি না। একটি সমস্যার সঠিক সমাধানই কিন্তু হতে পারে আপনার বিজনেস করার একটি অন্যতম উপায়।এতে করে সমস্যা সমাধানও হল সাথে আপনার বিজনেস টাও হল।

১। বিজনেস আইডিয়া সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল আপনি কি করতে ভালোবাসে।

আপনি যদি খুব ভালো মানের রান্না করতে পারেন তাহলে আপনি একটি রেস্টুরেন্ট দিতে পারেন। আপনি যদি ভালো ছবি আঁকতে পারেন বা কুটির শিল্পের কাজ জানেন বা ভালো ডিজাইন করতে পারেন।

যদি আপনি ভালো ডিজাইন করতে পারেন তাহলে আপনার কাপড়ের ডিজাইন করে একটা বিজনেস করতে পারেন পাঞ্জাবির বিজনেস করা যায়। আপনি কোন বিষয়ে পারদর্শী সেটা চিন্তা করুন  সেটা নিয়ে কি বিজনেস করা যায় সেটা নিয়ে ভাবুন।

২।পণ্য রিপ্রেজেন্টঃ

আমাদের ৬৪ জেলার প্রত্যেকটি জেলা এক একটি পণ্য বা স্থানের জন্য বিখ্যাত। এই বিখ্যাত পণ্যটি নিজে জেলা এবং পুরো দেশে বিক্রি বা রিপ্রেজেন্ট করেও মাসে অনেক টাকা ইনকাম করা যায়। এটি আপনি ই কর্মাস বা এফ কর্মাসের সাহায্য নিয়েই করতে পারবেন।

এতে করে দেশের মানুষও জানলো তার দেশ সম্পর্কে তার দেশের পণ্য সম্পর্কে আপনারা একটা বিজনেস হয়ে গেল। একদিকে দেশকে রিপ্রেজেন্ট করা অন্যদিকে নিজের বিজনেস কে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া। এই বিজনেস করে। যেমন, আপনি সাবলম্বী হতে পারবেন তেমনি অনেক যুবকের বেকার সমস্যা সমাধান হবে।

যদি আপনি বুদ্ধিমান হয়ে থাকেন তাহলে এই বিজনেস এর মাধ্যমে আপনি অনেক দূর পর্যন্ত নিয়ে যেতে পারবেন যেটা আপনার দারিদ্রতা বেকারত্ব দূর করে দিবে।

৩।এজেন্ট বিজনেসঃ

যেকোন রানিং পণ্যের কোম্পানি গুলো তাদের পণ্যের বিক্রয় বৃদ্ধি করার জন্য এজেন্ট নিয়োগ করে থাকে। সেই সকল কোম্পানির এজেন্ট হয়েও আপনি শুরু করতে পারেন নিজের ব্যবসা। কোম্পানির কমিশন এবং আপনার লাভ একসাথে ভালোকথা মানের টাকা ইনকাম করা সম্বভ।

এজেন্ট বিজনেস করে আপনি বিনা খরচে বা বিনা মূলধনে বিজনেস করতে পারেন। এজেন্ট বিজনেস করে যখন আপনার কিছু টাকা হয়ে যাবে তখন আপনি নিজেই আপনার নিজের বিজনেস কে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারবেন। সেই এজেন্টের কাছ থেকে আপনার পণ্য ক্রয় করে আপনি বিজনেস করতে পারবেন।

এতে আপনার আগের এক্সপেরিমেন্ট অনেক কাজে দিবে। কোম্পানি যে কমিশন দেবে আপনার পণ্যে তা আপনাকে আর্থিকভাবে যেরকম সাহায্য করবে ঠিক সেরকম আপনার বেকারত্ব দূর করবে। বাংলাদেশে আজ অনেক যুবক এজেন্ট বিজনেস করছে।

৪।অপ্রচলিত কোন কিছুর প্রচলনঃ

 আপনার এলাকায় এখনো প্রচলিত হয় নি এমন কিছুও কিন্ত হতে পারে আপনার জন্য বিজনেস করার দারুন সু্যোগ। যেমন বাংলাদেশে ওবার কিন্তু ছিল না বা নেই। কিন্ত সেই ওবারের মত করেই গড়ে তুলা হয় পাঠাও,ওভাই এর মত রাইড শেয়ারিং। যার মাধ্যমে প্রতিদিন হাজার হাজার টাকার ব্যবসা করতেছে।

আপনি দেখেন এমন কি আছে যা এখনো আপনার এলাকায় প্রচলন হয়নি কিন্ত প্রচলন করার মত রয়েছে অনেক সু্যোগ। এবং শুরু করুন নিজের কাজ।আপনার এলাকা বা আপনার শহর এমন কোন পণ্য আপনার এলাকা বা শহরে নেই বা এখনো প্রচলন নেই সেটা খুঁজে বের করে আপনি একটি সুন্দর বিজনেস করতে পারেন এতে করে। আপনার প্রচুর পরিমাণে মুনাফা অর্জন হবে।

৫। কমিশন বিজনেসঃ

এজেন্ট বিজনেস এর মত কমিশন বিজনেস কোন কোম্পানি সেই কোম্পানির পণ্য বিক্রি করা বৃদ্ধি করার জন্য কিছু কমিশন দিয়ে থাকেন। যেমন বলা যায় ১০,০০০টাকার পণ্য বিক্রি করলে আপনাকে 2,000 টাকা তারা দিবে।  তারমানে ১০০% ভিতরে ২০% – ১০% আপনাকে দিবে।

আমাদের দেশে অনেক কোম্পানিই আছে যারা কমিশনের মাধ্যমে আপনাকে ব্যবসা করার সুযোগ দিচ্ছে। খুজে বের করুন সেই সকল কোম্পানি। আপনার সুবিধে মত হলেই শুধু করে দেন কমিশন ব্যবসা। এতে করে আপনি অল্প মূলধন নিয়েই করতে পারবেন নিজের পছন্দের ব্যবসা।

তাহলে আর দেরি কেন,এবার খুজে বের করুন আপনার সেই স্বপ্নের ব্যবসায়ীক আইডিয়া এবং নিজের মত করে শুরু করুন আপনার কোম্পানি বা ব্যবসা। ধন্যবাদ সকলকে